December 15, 2018|  
।। বৃহত্তম বরিশাল বিভাগের সর্ব প্রথম আই.টি সংবাদ ভিত্তিক আপনাদের অনলাইন ম্যাগাজিন মিডিয়া ডিজিটাল বরিশাল ডট কম আপনাকে স্বাগতম।।

বরিশালে সর্বপ্রথম কপিরাইট পেলো জিহাদ রানা’র মোবাইল অ্যাপস ‘ডিজিটাল বরিশাল’

অনেক সম্ভবনার বরিশালে একের পর এক সুখবর নিয়ে আসছেন তরুণ উদ্যোক্তারা। তাদের ওই উদ্যোগ বাস্তবায়নের পরে সুফলও পাচ্ছে বরিশালবাসী। বিশেষ করে জিহাদ রানা নামে এক তরুণ ‘ডিজিটাল বরিশাল’ নামক একটি মোবাইল অ্যাপস তৈরি এবার শোরগোল ফেলে দিয়েছেন। অবশ্য এই প্রতিষ্ঠানটি এর আগে বরিশাল জেলা ব্রান্ডিং লোগো তৈরি করে তাক লাগিয়ে দিয়েছিল।

এবার তাদের তৈরি অ্যাপসটির বিশেষত্ব দেখে বাংলাদেশ সরকারের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারাও অভিভুত হয়েছেন। তাদের ভাষায়- এই অ্যাপসটি বরিশালবাসীকে নাগরিক সুবিধা ও বিশ্বের কাছে ধান নদী খালের বরিশালকে তুলে ধরতে সক্ষম। যে কারণে ইঞ্জিনিয়ার বিডি নেটওয়ার্ক নামে আইসিটি প্রতিষ্ঠানে তৈরি অ্যাপসটিকে বুধবার (১৩ ডিসেম্বর) আনুষ্ঠানিক ভাবে সরকারি স্বকৃতি দেওয়া হয়।

সরকারের সাংস্কৃতিক বিষয়ক মন্ত্রণায়ের রেজিষ্টার অব কপিরাইট জাফর রাজা চৌধুরী অ্যাপস তৈরি কোম্পানির পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার জিহাদ রানা’র হাতে প্রমাণপত্র তুলে দেন। ওই সময় তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেন- ‘ডিজিটাল বরিশাল’ অ্যাপসটির ইতিমধ্যে সারাদেশে ছড়িয়ে পড়েছে।

যে কারণে বাংলাদেশ সরকার সরকারি অনুমোদন প্রদানের আদেশ দেন। তাছাড়া ‘ডিজিটাল বরিশাল’ অ্যাপসটিতে আমরা কোনরুপ ত্র“টি বা কোন ভুল ইনফরমেশন পাওয়া যায়নি।

বরং সুনিপুন ভাবে তৈরি করার কারণে অ্যাপসটিতে বিভাগের প্রত্যেকটি জেলার নামও তুলে ধরা হয়েছে।’ সরকারি স্বকৃতি পেয়ে আনন্দে উদ্বেলিত ইঞ্জিনিয়র বিডি নেটওয়ার্কের পরিচালক জিহাদ রানা। তিনি জানিয়েছেন- তার নিজস্ব শ্রম ও মেধা দিয়ে অ্যাপসটি তৈরি করেছেন।

যেখানে বরিশাল বিভাগের সকল তথ্য উপাত্ত্ব তুলে ধরেছেন। ২০১৫ সালে এ অ্যাপসটি তৈরি করেন জানিয়ে বলেন- এত সাড়া যে পাওয়া যাবে তা তিনি অনুমান করতেও পারেন নি।

সরকারি অনুমোদন দেওয়ায় এই তরুণ উদ্যোগক্তা প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। সেই সাথে আইটি বিষয়কমন্ত্রী জুনায়েদ আহাম্মেদ পলকের প্রতিও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন। ডিজিটাল বরিশাল’ এই অ্যাপসটি আবিস্কার করে ২০১৬ ও ২০১৭ সালে বরিশাল জেলা উদ্ভাবনী মেলায় পুরস্কার পান লাভ করেন প্রতিষ্ঠানটির কর্ণধর।

যদিও এই অর্জনকে অনেক বড় করে না দেখে ইঞ্জিনিয়ার বিডির এই কর্মকর্তা বরিশালটাইমসকে বলছেন- বরিশালবাসীর কল্যাণে তিনি এমন উদ্যোগ নিয়েছেন। তবে এই অ্যাপসটিতে অনাকাঙ্খিত ভুল ত্র“টি থাকলে সেগুলো পরবর্তীতে সংশোধন করার জন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন।’